সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ১১:১৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
ফরিদপুরের আদিবাসীদের শিক্ষা কর্মসংস্থান ও বাসস্থানের নিশ্চয়তা  দাবী  জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সংসদের সহ-সভাপতি আপেল মাহমুদ সহ- সাধারণ সম্পাদক রাহাত বোররচর ইউনিয়নে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ১০কেজি চাউল পেলেন দুই হাজার ২৪৫টি পরিবার ভেজাল হলেই আমাকে ফোন দেবেন ওসি শাহিনুজ্জামান খান গফরগাঁও থানা গফরগাঁওয়ে ব্রহ্মপুত্র নদে নৌকা ডুবি সাবেক বিজিবি সদস্য নিখোঁজ যশোর গোয়েন্দা(ডিবি)এর অভিযানে গ্রেফতার-০৪ ময়মনসিংহে ভারতীয় দেড়শত বস্তা চিনি উদ্ধার ; মিনি ট্রাক সহ এক চোরাকারবারি আটক কুষ্টিয়ায় বিজিবি’র অভিযানে ক্রিষ্টাল মেথ আইস উদ্ধার ভাঙ্গায় প্রবাসীর জমি দখলের অভিযোগ ফরিদপুরে সাতার প্রশিক্ষণ ও প্রতিযোগিতাঃ সনদ  বিতরণ 
নোটিশঃ
২৪ ঘন্টায় লাইভ খবর পেতে চোখ রাখুন প্রতিদিনের বাংলাদেশ ওয়েবসাইটে

সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্রর ৬’শ একর জমি অধিগ্রহণ বন্ধের দাবি

Reporter Name / ১৫ Time View
Update : শুক্রবার, ১৭ মে, ২০২৪, ৭:৪৪ অপরাহ্ন

কাওসার হামিদ,তালতলী(বরগুনা)প্রতিনিধি
বরগুনার তালতলীর বরবগী ইউনিয়নের ৫টি গ্রামে মিলেয়ে ৬’শ একর জমিতে ২০০ মেগাওয়াট সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে নর্থ-ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি লিমিটেড নামের একটি প্রতিষ্ঠান। ওই প্রতিষ্ঠানের হয়ে স্থানীয় প্রভাবশালী একটি মহলের বিরুদ্ধে জমি বিক্রির জন্য মালিকদের ওপর চাপ সৃষ্টির অভিযোগ উঠেছে। তিন ফসলি জমিতে সৌর বিদ্যুৎ প্রকল্প স্থাপন বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী।
শুক্রবার (১৭ মে) বেলা ১১ টার দিকে উপজেলার বড়বগী ইউনিয়নের আগাঠাকুর পাড়া গ্রামে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। এতে ঐ এলাকার প্রায় কয়েক হাজার নারী-পুরুষ আংশগ্রহন করেন। এ সময় এলাকাবাসীল পক্ষে বক্তব্য রাখেন,তালতলী উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান মিয়া মোস্তাফিজুর রহমান, বড়বগী ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর মিয়া আলম মুন্সী,কৃষক নেতা শাহজাহান টুকু ও শাহীন আলম প্রমুখ।
এ মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, প্রকল্পের জন্য প্রাথমিকভাবে যে জমি নির্বাচন করা হয়েছে। সেগুলো সবই তিন ফসলি। এই ফসলি জমি অধিগ্রহন করে প্রকল্প স্থাপন করলে কৃষির ওপর নির্ভরশীল শিকারীপাড়া,আগাঠাকুর পাড়াসহ ৫টি গ্রামের কয়েক হাজারেরও বেশি মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়বেন। গ্রামের অধিকাংশ মানুষ কৃষক হওয়ায় অন্য কোথাও চাকরির সুযোগও নেই। এ জন্য তিন ফসলি কৃষি জমি তারা হারাতে চায় না। প্রধানমন্ত্রী কাছে এলাকাবাসীর দাবি তাদের কৃষি জমি যাতে নষ্ট করা না হয়।
এই সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্পের প্রস্তাবিত ৬০০ একর এর ভেতরে ৫৫ শতাংশই তিন ফসলি কৃষিজমি। এ ছাড়া ২৫ শতাং শ বসতভিটা ও বাকি ২০ শতাংশ বাগান ও অন্যান্য স্থাপনা। মাঠের জমিতে সব ধরনের ধান, পাট, গম, আলু, ভুট্টা, বাদাম,ডাল ও বিভিন্ন ধরনের শীতকালীন ও গ্রীষ্মকালীন শাকসবজি চাষ করা হয়। গ্রামের প্রায় শতভাগ বাসিন্দা প্রত্যক্ষভাবে কৃষির ওপর নির্ভর করে জীবন-জীবিকার স্বপ্ন দেখেন। ভূমিহীনরা অন্যের কৃষিজমি বর্গা নিয়ে চাষাবাদ করে সংসার চালান। এই জমি অধিগ্রহণ করা হলে সাধারণ মানুষসহ কৃষক পরিবারগুলো অপূরণীয় ক্ষতির মুখে পড়বে। যাতে  তিন ফসলি জমি অধিগ্রহন না করা হয় সে জন্য সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
স্থানীয়দের অভিযোগ এই কম্পানীকে জমি অধিগ্রহন করে সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প স্থাপনের জন্য ৬’শ একর জমি দখল নিতে অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে কিছু প্রভাবশালী লোকজন। কৃষি জমিতে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে আগাঠাকুর পাড়া ও শিকারীপাড়া গ্রামের কৃষি জমি বলে কিছুই থাকবে না।
তালতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার সিফাত আনোয়ার তুমপা বলেন, ঐ এলাকায় সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প স্থাপনের জন্য প্রাথমিকভাবে জমি নির্ধারণ করা হয়েছিলো। সৌরবিদ্যুৎ স্থাপনকারী প্রতিষ্ঠান নর্থ-ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানির সংশিষ্টদের সাথে স্থানীদের একটি বৈঠক হয়েছে। সেখানে স্থানীয়দের দাবি তিন ফসলি জমিতে সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প স্থাপন যাতে না করা হয়। স্থানীয়দের দাবির  বিষয়টি সৌরবিদ্যুৎ স্থাপনকারী প্রতিষ্ঠান আমলে নিবেন আশাকরি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Developer Ruhul Amin