সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২:৪৭ অপরাহ্ন
নোটিশঃ
২৪ ঘন্টায় লাইভ খবর পেতে চোখ রাখুন প্রতিদিনের বাংলাদেশ ওয়েবসাইটে

নিজের অধিকারের জন্য আওয়াজ তুলতে হবে : মির্জা ফখরুল

Reporter Name / ৭৯ Time View
Update : শনিবার, ২১ জানুয়ারী, ২০২৩, ৯:৩০ পূর্বাহ্ন

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

আওয়ামী লীগ সরকারের বিভিন্ন সমালোচনা করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, হারিয়ে দেওয়া নির্বাচনে বিএনপি আর কখনো যাবে না। সরকারের প্রতারণা ও ছলনায় মানুষ আর ভুল করবে না। বাংলাদেশ সাধারণ মানুষের দেশ। এ দেশে জজ, ব্যারিস্টার ও এমপিদের যে অধিকার- তা একজন সাধারণ মানুষেরও। কিন্তু এই সরকার মানুষের সব অধিকার নষ্ট করে দিয়েছে। তাই নিজের কথা, নিজের অধিকারের জন্য আওয়াজ তুলতে হবে।

আজ শনিবার সকালে সাড়ে ১১টায় তার নিজ জেলা ঠাকুরগাঁও জেলা বিএনপি আয়োজিত হতদরিদ্রদের মাঝে কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন মির্জা ফখরুল। এসময় জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সাল আমিন, সহ-সভাপতি আল মামুন, অর্থ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম শরিফসহ বিএনপি অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সমালোচনা করে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের গণতন্ত্র হলো চুরি করা, লুট ও টাকা পাচার করার গণতন্ত্র এবং মানুষকে হত্যা করবার গণতন্ত্র। আওয়ামী লীগ গত ১৪ বছরে নাশকতা, সন্ত্রাস করে এই দেশকে শ্মাসানে পরিণত করেছে। অথচ বিএনপি মিছিল মিটিং করতে গেলেই নাশকতার পরিকল্পনা করা হচ্ছে বলে তা বন্ধ করে দেওয়া হয়। বিএনপি এই অপশক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছে, আর কোনো কথাই শোনা হবে না।

ফখরুল আরো বলেন, এই সরকার ১৪ বছর ধরে এই দেশ ও মানুষের বুকের উপর পাথরের মতো বসে আছে। তারা জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছে, জনগণের সঙ্গে এই সরকারের কোনো সম্পর্ক নেই। সরকারি দলের নেতা ও জনপ্রতিনিধিরা নিজেদের নিয়েই ব্যস্ত, তারা দিনে দিনে ফুলেফাঁপে উঠছে। যাদের স্যান্ডেল পরার ক্ষমতা ছিল না- তারা এখন গাড়ি চালাচ্ছে, দশতলা বাড়ি বানিয়েছে। কেউ গরিব হচ্ছে, আর কেউ ফুলে বড়লোক হচ্ছে- যা এখন সারা দেশের চিত্র। হাজার হাজার কোটি টাকা ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে বিদেশে পাচার করে দিচ্ছে। আর তাদের বিরুদ্ধে কথা বললেই মামলা দেওয়া হচ্ছে। কথা বলা, প্রতিবাদ করা, মিছিল করা যাবে না, সভা করা যাবে না। অথচ স্বাধীনভাবে কথা বলবার জন্য পাকিস্তানিদের হাত থেকে এই দেশ স্বাধীন করা হয়েছিল।

কৃষকরা তাদের ফসলের নায্যমূল্য পায় না জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব আরো বলেন, সারের দাম বেশি, তা পাওয়া যায় না। এই সরকার জনগণের ওপর জবরদখল করে আছে। জনগণের মূল্যায়ন তাদের কাছে নেই, কারণ জনগণের ভোটে তারা নির্বাচিত নন। বিএনপি নির্বাচন চায়, তবে তার আগে আওয়ামী লীগ সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে তারা চুরি করবেই অভিযোগ এনে তিনি বলেন, ‘এখন ইভিএম মেশিন বের করেছে, যেখানে জনগণ ভোট দিবে- ধানের শিষে আর সেটা হয়ে যাবে নৌকা। আপনি কোথায় ভোট দিলেন এই মেশিনে তার একটি কাগজ ভোটারদের দেওয়া হয় যা অন্যান্য দেশে প্রচলিত আছে। কিন্তু এখানে তা দেয় হয় না। তাই এমন ভোট ও জনগণকে নিয়ে মস্করা আর করতে দেওয়া হবে না।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Developer Ruhul Amin